Abortion

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী তিনি। ভালোবাসেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের এক ছাত্রকে। তাদের দুইজনের বাড়িই রংপুরে। একই কলেজে পড়ার সুবাধে তাদের মধ্যে গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। সময় পেলেই একে অন্যের কাছে ছুটে যেতেন। এভাবেই তাদের এ ভালোবাসা গড়ায় শারীরিক সম্পর্কে। এ বছরের শুরুতে তাদের সামনে নেমে আসে কালো ছায়া। প্রেমিকা বুঝতে পারেন গর্ভধারণ করেছেন। তার বয়ফ্রেন্ডকে জানালে তিনিও চিন্তিত হয়ে পড়েন। এমন ঘটনা জানাজানি হলে সমাজে লজ্জায় মুখ দেখাতে পারবেন না। এ অবস্থায় সিদ্ধান্ত নেন গর্ভপাত ঘটানোর। দুজনই চলে আসেন ঢাকায়। স্বামী-স্ত্রী পরিচেয়ে ভর্তি করা হয় রাজধানীর স্বনামধন্য একটি হাসপাতালে। কিন্তু তাতে বাদ সাধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তারা কোনো ধরনের গর্ভপাত করান না। চোখে-মুখে অন্ধকার যেন ভর করছে তাদের ওপরে। কূলকিনারা না পেয়ে হাসপাতালেরই আয়া মাহফুজা খানমের দেয়া ঠিকানা মতে কল্যাণপুরের এক ক্লিনিকে যান। এ মাহফুজাই দালালের ভূমিকা পালন করেন ওই ক্লিনিকের। কল্যাণপুরে এ ক্লিনিকে ২০ হাজার টাকার চুক্তিতে নাদিয়ার গর্ভপাত করানো হয়। গর্ভপাতের পর ওই প্রেমিকা মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েন। প্রচুর রক্তক্ষরণের ফলে তিনদিনে ১০ ব্যাগ রক্ত দিতে হয় তাকে। শুধু এই প্রেমিক জুটিই নন। এরকম হাজারো জুটি অনিরাপদভাবে গর্ভপাত ঘটান দেশে। শুধু অবৈধ গর্ভপাত নয়, স্বামী এবং স্ত্রীর ভুলে গর্ভধারণ করা দম্পতিও গর্ভপাত ঘটাচ্ছে অহরহ। এভাবে গর্ভপাত ঘটাতে গিয়ে কেউ কেউ মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন। মৃত্যুর কাছ থেকে ফিরে আসার অভিজ্ঞতাও রয়েছে কারো। অনেকে আবার পরবর্তীতে আজীবনের জন্য মাতৃত্বের স্বাদ হারান। রাজধানীসহ দেশের আনাচে-কানাচে এমন অসংখ্য হাসপাতাল ও ক্লিনিক রয়েছে। যেখানে গর্ভপাত ঘটানো হচ্ছে। বেআইনি এ কাজ করেন হাতুড়ে ডাক্তার, নার্স এমনকি ক্লিনিকের আয়া। বৈধতা না থাকায় গর্ভপাত করাতে তাদের গুনতে হয় বড় অঙ্কের টাকা। অথচ দেশের আইনে গর্ভপাত দণ্ডনীয় অপরাধ।

মার্তৃস্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, মায়েরা প্রজনন স্বাস্থ্য, জন্মধারণ, জন্মনিয়ন্ত্রণ এবং মাসিকের সঠিক সময় সম্পর্কে ভালোভাবে অবগত নন। এ কারণেই অনেকে অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ করেন। পরিবার ও পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মাতৃ ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিভাগের ব্যবস্থাপক ফাহমিদা সুলতানা বলেন, প্রথমত তারা জন্মনিয়ন্ত্রণ, এমআর পদ্ধতি সম্পর্র্কে জানেন না। যারা জানেন তারা লোকলজ্জার ভয়ে স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে যান না। ফলে গর্ভপাত করিয়ে থাকেন। অনেক সময় দেখা যায়, হাসপাতাল কর্র্তৃপক্ষের অসহযোগিতার কারণে এমআর করতে আসা ব্যক্তিকে ফিরে যেতে হয়। গর্ভের ভ্রূণ বড় হওয়ায় এমআর করা যাবে না বলে তাদের ফিরিয়ে দেয়ার মতো ঘটনাও ঘটে। উপায়ান্তর না পেয়ে তারা অদক্ষ ও হাতুড়ে ডাক্তারের শরণাপন্ন হন। ফলে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েন।

Advertisements

স্বামীর পাজরের হাড় দিয়ে স্ত্রীকে তৈরী করা হয়নি

সূরা আন নিসা’র ১নং আয়াতে আল্লাহপাক উল্লেখ করেছেন:
يَا أَيُّهَا النَّاسُ اتَّقُواْ رَبَّكُمُ الَّذِي خَلَقَكُم مِّن نَّفْسٍ وَاحِدَةٍ وَخَلَقَ مِنْهَا زَوْجَهَا وَبَثَّ مِنْهُمَا رِجَالاً كَثِيرًا وَنِسَاء وَاتَّقُواْ اللّهَ الَّذِي تَسَاءلُونَ بِهِ وَالأَرْحَامَ إِنَّ اللّهَ كَانَ عَلَيْكُمْ رَقِيبًا
হে মানব সমাজ! তোমরা তোমাদের পালনকর্তাকে ভয় কর, যিনি তোমাদেরকে এক ব্যক্তি থেকে সৃষ্টি করেছেন এবং যিনি তার থেকে তার সঙ্গীনীকে সৃষ্টি করেছেন; আর বিস্তার করেছেন তাদের দু’জন থেকে অগণিত পুরুষ ও নারী। আর আল্লাহকে ভয় কর, যাঁর নামে তোমরা একে অপরের নিকট যাচঞ্ঝা করে থাক এবং আত্নীয় জ্ঞাতিদের ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন কর। নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের ব্যাপারে সচেতন রয়েছেন।

আবার অন্য এক জায়গায় আল্লাহপাক বলেছেন: (সূরা: আল আ’রাফ | আয়াত: ১৮৯)
هُوَ الَّذِي خَلَقَكُم مِّن نَّفْسٍ وَاحِدَةٍ وَجَعَلَ مِنْهَا زَوْجَهَا لِيَسْكُنَ إِلَيْهَا فَلَمَّا تَغَشَّاهَا حَمَلَتْ حَمْلاً خَفِيفًا فَمَرَّتْ بِهِ فَلَمَّا أَثْقَلَت دَّعَوَا اللّهَ رَبَّهُمَا لَئِنْ آتَيْتَنَا صَالِحاً لَّنَكُونَنَّ مِنَ الشَّاكِرِينَ
তিনিই সে সত্তা যিনি তোমাদিগকে সৃষ্টি করেছেন একটি মাত্র সত্তা থেকে; আর “তার থেকেই তৈরী করেছেন তার জোড়া”, যাতে তার কাছে স্বস্তি পেতে পারে। অতঃপর পুরুষ যখন নারীকে আবৃত করল, তখন, সে গর্ভবতী হল। অতি হালকা গর্ভ। সে তাই নিয়ে চলাফেরা করতে থাকল। তারপর যখন বোঝা হয়ে গেল, তখন উভয়েই আল্লাহকে ডাকল যিনি তাদের পালনকর্তা যে, তুমি যদি আমাদিগকে সুস্থ ও ভাল দান কর তবে আমরা তোমার শুকরিয়া আদায় করব।

উপরের আয়াত দুটি বিশ্লেষন করলে দেখা যায়, “তোমাদেরকে/তোমাদিগকে সৃষ্টি করেছেন এক ব্যক্তি থেকে/একটি মাত্র সত্তা থেকে”। এখানে তোমাদেরকে/তোমাদিগকে বলতে সমগ্র মানবজাতিকে বুঝিয়েছেন। কেবলমাত্র পুরুষজাতিকে নয়। তাহলে সমগ্র মানবজাতিকে তিনি একটি মাত্র সত্তা বা ব্যক্তি থেকে সৃষ্টি করেছেন। আর “বিস্তার করেছেন তাদের দু’জন থেকে অগণিত পুরুষ ও নারী”। একথা বলা হয়নি যে প্রত্যেক পুরুষ থেকে তার সঙ্গীনীকে সৃষ্টি করেছেন।

এবার একটি হাদিস শুনি:
আবু হুরায়রা সূত্রে ইমাম বুখারি ও মুসলিম বর্ণনা করেন, নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন:
اسْتَوْصُوا بِالنِّسَاءِ فَإِنَّ الْمَرْأَةَ خُلِقَتْ مِنْ ضِلَعٍ وَإِنَّ أَعْوَجَ شَيْءٍ فِي الضِّلَعِ أَعْلَاهُ، فَإِنْ ذَهَبْتَ تُقِيمُهُ كَسَرْتَهُ، وَإِنْ تَرَكْتَهُ لَمْ يَزَلْ أَعْوَجَ فَاسْتَوْصُوا بِالنِّسَاءِ

তোমরা নারীদের সঙ্গে সদ্ব্যহার করবে। কেননা তাদেরকে সৃষ্টী করা হয়েছে পাঁজরের হাড় থেকে এবং সবচেয়ে বাঁকা হচ্ছে পাঁজরের ওপরের হাড়। যদি তুমি তা সোজা করতে যাও, তাহলে ভেঙে যাবে। আর যদি তুমি তা যেভাবে আছে সে ভাবে রেখে দাও তাহলে বাঁকাই থাকবে। অতএব, তোমাদেরকে ওসীয়াত করা হল নারীদের সঙ্গে সদ্ব্যহার করার। (সহিহ বুখারী)

স্ত্রী: এখানে তো বলা আছে, পাঁজরের হাড় থেকে

স্বামী: ঐ হাদিসটা বুখারী ৪৮০৭
… এই পাজরের হাড়ের ব্যাখ্যা তার আগের হাদীসে পাবা

…..৪৮০৬ আবদুল আযীয ইব’ন আবদুল্লাহ (রহঃ) হযরত আবূ হুরাইরা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, নারীরা হচ্ছে পাঁজরের হাড়ের ন্যায়। যদি তোমরা তাকে একেবারে সোজা করতে চাও, তাহলে ভেঙ্গে যাবে। সুতরাং, যদি তোমরা তাদের থেকে লাভবান হতে চাও, তাহলে ঐ বাঁকা অবস্থাতেই লাভবান হতে হবে। (বুখারী)

স্ত্রী: আচ্ছা বুঝলাম…

স্বামী: ঐ দুইটা হাদীসের ফোকাস কিন্তু স্ত্রীর সাথে সদব্যবহারের। কিন্তু এই ফোকাস দূরে রেখে বোঝানো হয় নারীরাই বাঁকা স্বভাবের!!! এইটা ঠিক না। আমাদের বুঝার ভুল

স্ত্রী: হুম্মম

স্বামী: হাদীস দুটায় দেখ কোথাও বলেনাই তোমাদের (স্বামী বা আদমের) পাজরের হাড় থেকে সৃষ্টি করা হয়েছে।

স্ত্রী: রাইট

স্বামী: আর পাজরের হাড় দিয়েও সদব্যবহার বোঝানো যায়। কিভাবে জানো, পাজরের হাড় আমাদের হৃদয়ের নিকটবর্তী। স্বত্রীর স্থান স্বামীর হৃদয়ে, তার সাথে সদ্ব্যবহার করবে, তার ক্ষমতার অধিক চাপ সৃষ্টি করবে না, তার সাথে ইনসাফ করবে এটাই হাদিসটির মূল শিক্ষা।

স্ত্রী: অল্পজ্ঞানের ভয়ংকর বিদ্যা!

পরিশেষে একটি কথা বলা যায়, যেসব মহিলা তালাক প্রাপ্ত হয়ে বা স্বামী মারা যাওয়ার কারনে অন্য পুরুষের সাথে বিয়ে করেন। তাহলে তারা কিসের থেকে সৃষ্টি বা কতজন পুরুষের পাঁজরের হাড় থেকে সৃষ্টি? বা অনেকের বিয়ে-ই হয় না কিংবা তার পূর্বে মারা গেলেন তাহলে তারা কার পরজড়ের হাড় থেকে সৃষ্টি হয়েছেন।

তাই কোরআন ও হাদিসের আলোকে একথা বলা যায় যে, আল্লাহপাক সর্বপ্রথম হযরত আদম (আ:) কে সৃষ্টি করেছেন। এরপর তার থেকে হযরত হাওয়া (আ:) কে সৃষ্টি করেছেন এবং তাদের দু’জন থেকে পর্যায়ক্রমে সমগ্র মানবজাতি সৃষ্টি করে সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে ছিয়েছেন।

Collected

সেলফিতে বাড়ে মানসিক সমস্যা!

ড্যানি বোম্যান থাকেন যুক্তরাজ্যে। ১৯ বছরের এই তরুণের ঘণ্টায় কয়েকটা করে সেলফি না তুললেই নয়। দিনে ১০ ঘণ্টা তিনি ব্যয় করেন মোবাইলের ক্যামেরার সামনেই। একপর্যায়ে সেলফির নেশায় গুরুতর মানসিক সমস্যায় পড়েন ড্যানি। কমতে থাকে ওজন। কাঙ্ক্ষিত মানের সেলফি তুলতে না পারায় বাড়তে থাকে হতাশা। একপর্যায়ে আত্মহত্যার চেষ্টাও চালান ড্যানি। সে যাত্রা অবশ্য মায়ের কল্যাণে প্রাণে বেঁচে গিয়েছিলেন ড্যানি। পরে পুনর্বাসন কার্যক্রম ও মানসিক চিকিৎসা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছিল

ডিআইওয়াই হেলথ অ্যাকাডেমিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেলফি তোলার সঙ্গে আত্মমগ্নতা বা আত্ম মুগ্ধতার (নার্সিজম) সম্পর্ক রয়েছে।নিখুঁত সেলফি তোলার জন্য বারবার চেষ্টা করতে গিয়ে তা একসময় নেশায় পরিণত হতে পারে। আবার নিজের নিখুঁত ছবিটি তুলতে না পারার ব্যর্থতা অযাচিত হতাশার জন্ম দিতে পারে।

ওই প্রতিবেদনে মনোরোগ চিকিৎসক ডেভিড ভিল বলেছেন, তাঁর কাছে যত রোগী আসেন-তার প্রতি তিনজনের দুজন বডি ডিসমরফিক ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত থাকেন। এটি এমন এক ধরনের মানসিক সমস্যা,যার কারণে আক্রান্ত ব্যক্তি নিজের চেহারার খুঁত নিয়ে অনবরত চিন্তায় থাকেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে এ সমস্যায় আক্রান্ত ব্যক্তিরা প্রচুর পরিমাণে সেলফি তোলেন এবং সেগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করেন। সেখানে অন্যান্য পরিচিতজনদের করা মন্তব্য থেকেই ধীরে ধীরে তাঁরা এই রোগে আক্রান্ত হন। হাফিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক গবেষণাতেও দেখা গেছে যে, যারা অনলাইনে নিজেদের বেশি বেশি ছবি আপলোড করেন, তাঁরা আত্ম মুগ্ধতা ও নানা ধরনের মানসিক সমস্যায় ভোগেন।

প্রাথমিকভাবে একজন কম আত্মবিশ্বাসী ব্যক্তি তাঁর সেলফি আপলোড করে লাইক ও কমেন্ট পেয়ে উৎসাহিত বোধ করতেই পারেন। কিন্তু তিনি যদি সামাজিক মাধ্যমকেই তাঁর আত্মবিশ্বাসের উৎস হিসাবে বিবেচনা করেন, তবেই ভুল হবে। কারণ এই ডিজিটাল মাধ্যম কোনোভাবেই আত্মবিশ্বাস ও অনুপ্রেরণার সুস্থ উৎস হতে পারে না এবং তা থেকে পাওয়া প্রতিক্রিয়া সব সময় ইতিবাচকও হবে না। ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রতি নির্ভরশীল ব্যক্তিদের এক সময় হতাশায় নিমজ্জিত হতে হয়। আর তখনই ঘটে বিপত্তি। তাই সেলফি তোলায় যত কম সময় ব্যয় করা যায়, ততই মঙ্গল।

উৎস: প্রথম আলো

Woocommerce Snippets

/****************************/

Woocommerce:
===============

|| Related products
   plugins > woocommerce > templates > single-product > related.php


|| how to move best seller product on the top
   go to storefront-template-hooks.php
   add_action( 'homepage', 'storefront_best_selling_products', 70 ); 
                      to
   add_action( 'homepage', 'storefront_best_selling_products', 10 );


|| img src directory
   <img src="<?php echo get_template_directory_uri(); ?>/assets/images/bd.jpg" width="" height="" alt="" />

|| custom css add
   <link rel="stylesheet" type="text/css" href="<?php echo get_stylesheet_directory_uri(). '/assets/css/custom.css' ?>">

|| Add Custom Fonts, top of the style.css file
   @font-face {
	font-family: calib;
	src: url('assets/fonts/calibrib.ttf');
}

|| search form anywhere
   <form role="search" method="get" class="woocommerce-product-search" action="<?php echo esc_url( home_url( '/'  ) ); ?>">
	<label class="screen-reader-text" for="s"><?php _e( 'Search for:', 'woocommerce' ); ?></label>
	<input type="search" class="search-field" placeholder="<?php echo esc_attr_x( 'Search Products&hellip;', 'placeholder', 'woocommerce' ); ?>" value="<?php echo get_search_query(); ?>" name="s" title="<?php echo esc_attr_x( 'Search for:', 'label', 'woocommerce' ); ?>" />
	<input type="submit" value="<?php echo esc_attr_x( 'Search', 'submit button', 'woocommerce' ); ?>" />
	<input type="hidden" name="post_type" value="product" />
   </form>


|| Number of related products
   add_filter( 'woocommerce_output_related_products_args', 'jk_related_products_args' );
   function jk_related_products_args( $args ) {
	$args['posts_per_page'] = 4; // 4 related products
	$args['columns'] = 3; // arranged in 3 columns
	return $args;
}


|| How to Remove Product Review,  go to functions.php
   	add_filter( 'woocommerce_product_tabs', 'helloacm_remove_product_review', 99);
	function helloacm_remove_product_review($tabs) {
		unset($tabs['reviews']);
		return $tabs;
	}

|| remove sidebar from product view page,  go to functions.php
   /* Storefront Theme – Remove WooCommerce Sidebar on the Single Product Page */
	add_action( 'get_header', 'bbloomer_remove_storefront_sidebar' );
	function bbloomer_remove_storefront_sidebar() {
	    if ( is_product() ) {
	        remove_action( 'storefront_sidebar', 'storefront_get_sidebar', 10 );
	    }
	}

|| add to cart text change, go to functions.php
   
   /* custom function add for add to cart text change */
	add_filter( 'woocommerce_product_add_to_cart_text', 'woo_archive_custom_cart_button_text' );    // 2.1 + 
	function woo_archive_custom_cart_button_text() {
	    return __( 'BY NOW', 'woocommerce' );
	}

|| how to change product column
   your theme > inc > woocommerce > storefront-woocommerce-template-functions.php
   search storefront_loop_columns

|| How do I add WooCommerce product categories to a custom menu?
    Go to Appearance > Menus
    In the upper right corner, click on Screen Options and ensure the "Products" and "Product Categories" boxes are checked

|| Display My Account link in a template file
   <?php if ( is_user_logged_in() ) { ?>
      <a href="<?php echo get_permalink( get_option('woocommerce_myaccount_page_id') ); ?>" title="<?php _e('My Account','woothemes'); ?>"><?php _e('My Account','woothemes'); ?></a>
   <?php } 
   else { ?>
      <a href="<?php echo get_permalink( get_option('woocommerce_myaccount_page_id') ); ?>" title="<?php _e('Login / Register','woothemes'); ?>"><?php _e('Login / Register','woothemes'); ?</a>
   <?php } ?>

|| How to enable registration on "My Account" page
   Go to WooCommerce > Settings > Account and  Enable customer registration on the "My account" page.

|| How To Change Product Images Size?
   1st woocommerce > setting > product > Display > Product Images
   2nd Regenerate Thumbnails plugins install and active
   tutorial link: https://www.youtube.com/watch?v=YVLb3eG0JdI
   

|| product detail page sku and category
   wp-content\plugins\woocommerce\templates\single-product\meta.php

|| Product listing page product name
   content-product.php
   <a href="<?php the_permalink(); ?>">---- </a>

|| product view page review tab remove

<?php
	add_filter( 'woocommerce_product_tabs', 'sb_woo_remove_reviews_tab', 98);
	function sb_woo_remove_reviews_tab($tabs) {

	 unset($tabs['reviews']);

	 return $tabs;
	}
?>

|| product view short description:
   woocommerce/single-product/short-description.php

|| breadcrumbs slash '/' replace as '>'
   function.php

<?php
	add_filter( 'woocommerce_breadcrumb_defaults', 'my_change_breadcrumb_delimiter' );
	function my_change_breadcrumb_delimiter( $defaults ) {
	 // Change the breadcrumb delimiter from '/' to '>'
	 $defaults['delimiter'] = ' > ';
	 return $defaults;
	}
?>

|| Default breadcrumbs remove from product page:
   function.php
   <?php remove_action( 'woocommerce_before_main_content','woocommerce_breadcrumb', 20, 0);?>

|| prodcut view page related product remove
   function.php
   <?php remove_action( 'woocommerce_after_single_product_summary', 'woocommerce_output_related_products', 20 );?>

|| Add to cart remove:
        <?php
		/* product listing page add to cart remove */
		function remove_loop_button(){
			remove_action( 'woocommerce_after_shop_loop_item', 'woocommerce_template_loop_add_to_cart', 10 );
		}
		add_action('init','remove_loop_button');
			or
		remove_action( 'woocommerce_after_shop_loop_item', 'woocommerce_template_loop_add_to_cart' );
		
		/* product detail page add to cart remove */
		remove_action( 'woocommerce_single_product_summary', 'woocommerce_template_single_add_to_cart', 30 );
		
	?>

|| Price Remove
       <?php
		/* product listing page price remove */
		remove_action( 'woocommerce_after_shop_loop_item_title', 'woocommerce_template_loop_price', 10 );
		/* product detail page price remove */
		remove_action( 'woocommerce_single_product_summary', 'woocommerce_template_single_price', 10 );
		
	?>

|| edit products page:

You need to add a folder to your theme named "woocommerce" and copy the contents from the woocommerce plugin folder under "templates", 
copy archive-product.php and paste your theme woocommerce folder. The loop folder contains the files you want to use. 
so, in your theme, you'd have something like
themefolder/woocommerce/archive-product.php
themefolder/woocommerce/loop/...
<?php
	do_action( 'woocommerce_sidebar' )
?>


|| Dynamic Product Category in sidebar:
   Appearance > Widget:
   drag and drop (WooCommerce Product Categories) in (primary sidebar) or (secondary widget area)

|| Dynamic product category anywhere:
   function.php

<?php
	/* product category */
	function wooCommerceCategories() {

		$taxonomy     = 'product_cat';
		$orderby      = 'name';  
		$show_count   = 0;      // 1 for yes, 0 for no
		$pad_counts   = 0;      // 1 for yes, 0 for no
		$hierarchical = 1;      // 1 for yes, 0 for no  
		$title        = '';  
		$empty        = 0;

		$args = array(
			'taxonomy'     => $taxonomy,
			'orderby'      => $orderby,
			'show_count'   => $show_count,
			'pad_counts'   => $pad_counts,
			'hierarchical' => $hierarchical,
			'title_li'     => $title,
			'hide_empty'   => $empty
		);
		$all_categories = get_categories( $args );
		 foreach ($all_categories as $cat) {
			if($cat->category_parent == 0) {
				$category_id = $cat->term_id;       
				echo '<br /><a href="'. get_term_link($cat->slug, 'product_cat') .'">'. $cat->name .'</a>'; 
				$args2 = array(
						'taxonomy'     => $taxonomy,
						'child_of'     => 0,
						'parent'       => $category_id,
						'orderby'      => $orderby,
						'show_count'   => $show_count,
						'pad_counts'   => $pad_counts,
						'hierarchical' => $hierarchical,
						'title_li'     => $title,
						'hide_empty'   => $empty
				);
				$sub_cats = get_categories( $args2 );
				if($sub_cats) {
					foreach($sub_cats as $sub_category) {
						echo  $sub_category->name ;
					}   
				}
			}       
		}
	}
	/**/
?>

/* function call */

<div class="product_category col-lg-1 col-md-2">
     <?php if(function_exists("wooCommerceCategories")) wooCommerceCategories(); ?>
</div>